বুড়িচংয়ে চামড়ার ন্যায্য মূল্য না পাওয়ায় ২ শতাধিক চামড়া গোমতী নদীতে নিক্ষেপ

এবারের কোরবানীর পশুর চামড়ার দর পতন হওয়ায় ব্যবসায়ী ও বিক্রেতারা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছে । স্হানীয় লোকজন ও অভিজ্ঞ মহল মনে করেন একটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে একটি মহল এ ধরনের কারসাজি করে ন্যায্য মূল্য থেকে গরীব এতিমদেরকে বঞ্চিত করেছে। গত দুই যুগ ধরে চামড়ার এমন দর পতন কখনো দেখেনি। গরুর প্রতিটি চামড়া সিন্ডিকেটের লোকজন ২-৩ শত টাকা মূল্য নির্ধারণ করে। এতে বুড়িচং উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম গঞ্জে হাজার হাজার চামড়া আটকে যায়। এলাকাবাসী হয়ে উঠে চরম ক্ষুদ্ধ।

গত মঙ্গলবার চামড়ার দাম২-৩ শত টাকার বেশী না পাওয়ায় উপজেলায় পীর যাত্রাপুর ইউনিয়ন এর গোবিন্দ পুর গ্রামের ব্যবসায়ী আমান উল্লাহ,শাহ আলম,ময়নাল হোসেন সহ আরও ২-৩ জন মিলে তাদের ক্রয় করা ২ শতাধিক চামড়া গোমতী নদীর ব্রীজের উপর ট্রাক ভর্তি করে নিয়ে নদীতে নিক্ষেপ করে ফেলে দেয়।

ব্যবসায়ী আমান উল্লাহ বলেন, আমরা কয়েকজন মিলে ২ শতাধিক চামড়া এলাকা থেকে সংগ্রহ করি। কিন্তু চামড়ার এমন দরপতন হয়েছে যা হতাশ হওয়া ছাড়া আর কিছু করার নাই।কোরবানির পশুর চামড়ার হক হল গরীব অসহায় আর এতিমদের। একটি সিন্ডিকেটের কাছে সবাই জিম্মি হয়ে গিয়ে ধরা খেলাম। তাই যে টাকা দিয়ে এলাকা থেকে চামড়া সংগ্রহ করেছি তার অর্ধেক দাম পাওয়া যাচ্চে না। এর জন্য বাধ্য হয়ে প্রায় ২৪৫ টি গরুর চামড়া আমরা তিন ব্যবসায়ী ট্রাকসহ নিয়ে গোবিন্দপুর গোমতী নদীর ব্রীজের উপর থেকে চামড়া গুলো নদীর পানিতে নিক্ষপ করে ফেলে দেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *