চিহ্নিত ছিনতাইকারীর পা ভেঙ্গে দু’চোখ নষ্ট করে দিল এলাকাবাসী

ডেস্ক রিপোর্ট:
বাগেরহাটের শরণখোলায় সাইফুল ইসলাম (৩৫) নামের এক চিহ্নিত ছিনতাইকারীর পা ভেঙ্গে দু’চোখ নষ্ট করে দিয়েছে অতিষ্ট এলাকাবাসী। রোববার ভোর রাতে উপজেলার মঠেরপাড় গ্রামের ফসলের মাঠ থেকে তাকে উদ্ধার করে শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
আহত সাইফুল শরণখোলা উপজেলার খোন্তাকাটা ইউনিয়নের রাজৈর গ্রামের নুরু মোল্লার ছেলে। তার বিরুদ্ধে শরণখোলা থানায় চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই ও মাদকসহ অসংখ্য মামলা রয়েছে।
খোন্তাকাটা ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন খান মহিউদ্দিন জানান, সাইফুল দীর্ঘ দিন ধরে এলাকায় চাঁদাবাজী, চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি, মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে। সম্প্রতি রাজৈর এলাকায় চুরি করতে গেলে বাধা দেয়ায় ইব্রাহিম নামে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে জখম করে। এছাড়া একই এলাকার আসলাম হাওলাদারের একটি গরুর চারটি পায়ের রগ কেটে দেয়। এর আগে তিনি আসলামের ঘরে ডুকে তার মেয়েকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে বিয়ে করেন। তার বিরুদ্ধে শরণখোলা থানায় এক ডজন মামলা রয়েছে। সাইফুলের একের পর এক অপরাধ কর্মকাণ্ডে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ ছিল। তার ভয়ে এলাকার অনেক লোক পালিয়ে থাকতো।
শরণখোলা থানার ওসি মো: সাইদুর রহমান জানান, ভোর রাতে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা সাইফুলকে মারধর করে পা ভেঙ্গে দুই চোখ নষ্ট করে দিয়ে ফসলের মাঠে ফেলে রেখে যায়। পরে এলাকার ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন তালুকদার তাকে উদ্ধার করে শরণখোলা হাসপাতালে ভর্তি করেন। সাইফুলের চিকিৎসার জন্য তার বাবা নুরু মোল্লাকে খবর দেয়া হলে ছেলের সাথে তার কোনো সর্ম্পক নেই বলে তিনি জানান।
শরণখোলা হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা: ফয়সাল আহম্মেদ জানান, সাইফুলের দুই চোখ নষ্ট এবং বাম পা ভেঙ্গে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। কিন্ত তার কোনো অভিভাবক পাওয়া যাচ্ছে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *